বারেলি কি বারফি হচ্ছে ২০১৭ সালের একটি রোমান্টিক হিন্দি চলচ্চিত্র

এই বছরে মুক্তি পেয়েছে এমন প্রথম মুভি দেখলাম। পংকজ ত্রিপাঠি অভিনীত ‘Kaagaz’ দিয়েই হলো শুভযাত্রা। মুভির প্রথমেই আমরা সালমান খানের আওয়াজ শুনতে পাবো, যেখানে তিনি কাগজ নিয়ে একটি কবিতার লাইন আবৃত্তি করছিলেন। কবিতাটা অসূম্পর্ণ রেখেই দৃশ্য পালটে যায়। কারণ, মুভিই তো শুরু হলো মাত্র।
এখানে সালমান খানের কণ্ঠ শুনতে পাওয়ার কারণ হলো মুভিটা তারই প্রোডাকশন হাউসের অধীনে নির্মিত।

এরপর আমরা লাল বিহারী নামক এক বাজনাওয়ালার সাথে পরিচিত হই। সদ্য বিবাহিত বিহারী নিজের স্ত্রীর পরামর্শে ব্যাংকে ঋণ নিতে যায় ব্যবসা বড় করার মনবাসনা নিয়ে। তবে, ঋণের জন্য বন্দক হিসেবে যখন জমির দলিলপত্র ভূমি অফিস আনতে যায়, তখনই ঘটে বিপত্তি।

বিহারী জানতে পারে, সে বহু আগেই মারা গেছে। সরকারি কাগজের হিসাবে। পরে সে জানতে পারে, তার ভাইয়েরা তার বরাদ্দকৃত জমি হাতিয়ে নিয়েছে তাকে মৃত প্রমাণ করে। এখন জিন্দা লাশ হয়ে যাওয়া বিহারী কিভাবে কাগজে প্রমাণ করবে যে, সে জীবিত তা নিয়েই পরবর্তী কাহিনী এগোতে থাকে।

মুভির গল্প একটি সত্য ঘটনার উপর তৈরি

তবে, শুনতে ইন্টারেস্টিং শোনালে দেখার সময় বেশি ইন্টারেস্টিং নাও লাগতে পারে। পজিটিভ দিক বলতে ত্রিপাঠি মামার অভিনয়ই শেষপর্যন্ত আকর্ষণ ধরে রাখবে।

এছাড়া, পরিচালনা খুবই বাজে ছিল। এমন কাহিনীকেও পর্দায় যথাযথভাবে তুলে ধরতে পরিচালক ব্যর্থ। তাছাড়া, ব্যাকগ্রাউন্ড ও এডিটিংও তেমন নতুনত্ব ছিল না। মেকআপও দুর্বল লেগেছে, কারণ এখানে লাল বিহারীর ১৮ বছরের লড়াই দেখানো হয়েছে। কিন্তু, প্রধান অভিনেতা ও অভিনেত্রীর কয়েকটা চুল সাদা দেখিয়েই কাজ সেরে ফেলা হয়েছে। এসব বিষয় যদিও আজকাল মানুষ খেয়াল করে না। তবুও একবার পরিবার নিয়ে দেখার মতো একটি মুভি ‘Kaagaz’।

এই যে আমি রিভিউ পোস্ট করলাম,আপনি পড়তেছেন তারমানে আমরা দুজনেই জানি আমি বেঁচে আছি।কিন্তু কোন এক কারণে সরকারি কাগজ মনে করলো “ন্যাহ,তোর বেঁচে থাকার অধিকার নাই।তুই যাই করিস,বিচার মানি কিন্তু তালগাছ আমার।মানে তুই যত পাগলা ড্যান্সই দেস তোরে আমি বাঁচাবই না।!” এরকম অবস্থায় পরলে আসলেই কি আমি জীবিত, নাকি মৃত??

আপনি হয়তো ভাবছেন আরে কাগজে লিখে দিছে জন্য কি এমন হয়ে গেলো???ভাই বিয়ে করবেন??প্রমাণ করতে হবে আপনি জীবিত।জমি কিনবেন,বাড়ি বানাবেন,চাকরি করবেন,বিদেশ যাবেন সবখানে প্রমাণ করতে হবে আপনি জীবিত।যদি সরকারি কাগজে লিখা হইছে আপনি মরা,সেই কাগজ ঠিক করার আগে পর্যন্ত আপনি আসলেও ৫০% মরা!

কখনো সরকারি অফিসে কোন ভুল শোধরাতে গেছেন?বেশীরভাগই যাননি।যারা গিয়েছেন,তারাই জানেন ইহা কি কঠিন প্যারা।জুতার তলা খসে যাবে,পকেট ফুটা হয়ে কিছু টাকা টেবিলের ওধারে কিছু টাকা এধারে পরে যাবে তবু সহজে কাজ হবে না।আপনি সমাজের গণ্যমান্য কেউ হলে অবশ্য আলাদা হিসাব।ভাবছেন

এসবের সাথে মুভির কি সম্পর্ক?

পঙ্কজ ত্রিপাঠি গ্রামের সহজ সাধারণ আমজনতা।ব্যাংকে লোন তোলার জন্য চাচাদের থেকে জমি নিতে যেয়ে দেখে চাচারে কাগজে কলমে তাকে মেরে ফেলেছে।এ আর এমন কি ব্যাপার!

এখানে ওখানে বললেই ঠিক করে দিবে।অন্তত এমনটাই ভেবেছিলো।কিন্তু আমজনতার জন্য উপমহাদেশের কোনখানেই শান্তি নাই।এদের জন্য কোন কাজ সহজে হয় না।

সবাই শুধু আশ্বাস দেয়,কাজ আর কেউ করে দেয় না।জীবিত একটা মানুষ যুদ্ধ করতেছে কাগজে কলমে নিজেকে জীবিত করার জন্য!এক অফিসার থেকে আরেক অফিসার,তার উপরের অফিসার,প্রধানমন্ত্রীর অফিস,সবখানে লিখেই সে বিফল!

তার এত এত চেষ্টার থেকে একটুকরো কাগজের জোর অনেক বেশী!এখন নিজেকে জীবিত করার জন্য কি করবে সে?আসলেই কি নিজেকে জীবিত করতে পারবে কাগজে কলমে,নাকি যুদ্ধ করতে করতে একদিন বাস্তবেই পরপারে চলে যাবে???

পংকজ ত্রিপাঠি আসলেই অসাধারণ অভিনেতা! এখানেও দেখিয়েছেন কত ভালো অভিনয় করেন।অন্যান্য চরিত্ররা উতরে গেছেন আর কি।তবে প্রধান চরিত্র যেহুতু কম সেহুতু কিছু ভালো অভিনেতা অভিনেত্রী কাস্ট করলে বেটার হত।বাজেট একটু বেশী হলে এমন কনসেপ্টের মুভি বেশ ভালো চলতো।

তবে মুভিটার কনসেপ্ট খুবই সুন্দর। তবে স্ক্রীনপ্লে বা বিজিএম অতটা ভালো হয়নি।মেক আপ বেটার হতে পারতো আরো।তবে একবার দেখাই যায় মুভিটা।চমৎকার চমৎকার কিছু ডায়ালগ ও আছে। কিছু জায়গায় হাসবেন,কিছু জায়গায় ভাববেন।হাতে করার কিছু না থাকলে দেখে ফেলুন।

মুভিঃ Kaagaz

আপনার মন খারাপ? তাহলে একটা মুভি সাজেশন করি

মন ভাল হয়ে যাবে আশাকরি। চেরাগ দুবে, প্রীতম বিদ্রোহী ও বিট্টি এই তিন চরিত্র আপনার খারাপ মন ভাল করে দিবে।

  • 🔷 Movie Name ⏩ Barelly ki Barfi(2017)
  • 🔷 Cast ⏩ Aayushman kurrana, Rajkumar Rao, Kirti sanon, Pankaj Tripathi etc.
  • 🔷 Genre ⏩ Romantic, Comedy
  • 🔷 Director ⏩ Ashwiny iyer tiwari
  • 🔷 IMDB ratings ⏩ 7.5/10
  • 🔷 Personal ratings ⏩ 8.5/10

73% Rotten tomatoes and 95% goggle users like this film.

👉👉 প্লটঃ এই চলচ্চিত্রটি ভালোবাসার উপাদান নামের একটি ফরাসি উপন্যাসের উপর ভিত্তি করে নির্মিত যেটি ‘নিকোলাস ব্যারু’ লেখেন। চেরাগ ডুবে প্রেমে ছ্যাকা খেয়ে বর্তমানে প্রিন্টিং পাবলিশিং দোকান ব্যবসায়, প্রীতম বিদ্রোহী সহজ সরল টাইপের লোক ছোট খাটো কাপড়ের দোকানে কাজ করে এবং বিট্টি বিদুৎ অফিসে চাকুরী করলেও বিয়ে নিয়ে সংকটে আছে। এই তিনজনকে নিয়ে মুভির কাহিনী।

👉👉 বারেলি কি বারফি হচ্ছে ২০১৭ সালের একটি রোমান্টিক হিন্দি চলচ্চিত্র যেটি অশ্বিনী আইয়ার তিওয়ারী পরিচালনা করেন। চলচ্চিত্রটির মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেন আয়ুষ্মান খুরানা, কৃতি শ্যানন এবং রাজকুমার রাও। চলচ্চিত্রটি মুক্তি পায় ২০১৭ সালের ১৮ আগস্ট। চলচ্চিত্রটি ব্যবসাসফলতা সহ বক্স অফিস হিট এবং দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছিলো।

এই চলচ্চিত্রটি ভালোবাসার উপাদান নামের একটি ফরাসি উপন্যাসের উপর ভিত্তি করে নির্মিত যেটি ‘নিকোলাস ব্যারু লেখেন। ৬৩তম ফিল্মফেয়ার এ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে বরেলি কি বরফি আটটি শ্রেণীতে মনোনয়ন পায়, এগুলোর মধ্যে সেরা চলচ্চিত্র শ্রেণীতে মনোনয়ন ছিলো, সেরা সহ অভিনেত্রী হিসেবে সীমা ভার্গাভা মনোনয়ন পান এবং তিওয়ারী সেরা পরিচালক এবং রাজকুমার রাও সেরা সহ অভিনেতা শ্রেণীতে পুরস্কার জিতেছিলেন।

👉 মুভির স্টোরি, ডিরেকশন, বিজিএম, সিনেমাটোগ্রাফী ভাল ছিল। আয়ুশমান খুররানা, রাজকুমার রাও, কৃতি শ্যানন অসাধারণ অভিনয় করেছে সাথে কালিন ভাইয়ার অভিনয় জোস ছিল। মন খারাপ থাকলে মুভিটা দেখতে বসে যান। আর যারা এখনো দেখেননি তারা অবশ্যই দেখে ফেলবেন। অসংখ্য ধন্যবাদ!!!!!

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *